fbpx
সংবাদ শিরোনাম
মেহেরপুরের সাহিত্যিক মোঃ নুর হোসেন শব্দ কথায় সৃষ্টি করে চলেছেন সাহিত্যের নানান আদিত্য তাকবিরে তাশরিক কখন কিভাবে? সূনয়না বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি জয়নাল,সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত  Making The World A Better Place স্লোগানে তরুণ নেতৃত্ব তৈরি করছে  ইউপিজি ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের উন্নয়নে নতুন করে পদক্ষেপ নেওয়ার সময় এসেছে- শিল্পমন্ত্রী বেনাপোলে দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের কর্মশালা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্ব সকল স্বার্থের উর্ধ্বে – পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী পাইকগাছায় উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা উত্তরা আজমপুরে ডিএনসিসি’র উচ্ছেদ অভিযান; নেতৃত্বে মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম

অনলাইন মার্কেটপ্লেসে সরবরাহের শীর্ষে মেহেরপুরের আম

                                           
মামুন অর রশিদ বিজন
প্রকাশ : শনিবার, ২৯ মে, ২০২১

বিশ শতকের শেষের দিকে উন্নত দেশগুলোতে ডিজিটাল বিপ্লব শুরু হলেও একুশ শতকে এসে তা উন্নয়নশীল অধিকাংশ দেশে ছড়িয়ে পড়ে। তথ্য ও যোগযোগ প্রযুক্তির বিস্ময়কর সম্প্রসারণ সারাবিশ্বে ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে আধুনিকতা ও নতুন মাত্রা নিয়ে এসেছে- যা ই-কমার্স নামে পরিচিত। বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও চলছে ই-বাণিজ্য।

আমের রাজ্য রাজশাহী হলেও স্বাদের দিক থেকে প্রথম স্থানে মেহেরপুরের আম। মেহেরপুরের মাটির গুনগুত মান ও আবহাওয়া ভালো হওয়াই এখানকার আমের স্বাদ ও মান অনেক ভালো। মেহেরপুর প্রতি বছর বানিজ্যিকভাবে অনেক জাতের আম চাষ হয়। এর মধ্যে রয়েছে হিমসাগর, ল্যাংড়া, ফজলি, আম্রপালী, বোম্বাই, আঁটি ইত্যাদি। মেহেরপুরের আম দেশের গন্ডি পেরিয়ে ইউরোপীয় বেশ কিছু দেশে রপ্তানিও হয়। স্বাদ ও মানের দিক থেকে মেহেরপুরের হিমসাগর বা ক্ষিরশেপাতি ব্যাপক জনপ্রিয়।

বর্তমান সময়ে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে আম ক্রয়-বিক্রয়ের অন্যতম জায়গা দখল করেছে অনলাইন মার্কেটপ্লেস বা ই-কমার্স। সুস্বাদু ও প্রিজারভেটিভমুক্ত আম কিনতে বাগান কিংবা বাজারে নয়, অর্ডার করলে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছে আম। তারই ধারাবাহিকতায় ফোনকল ও মেসেজের মাধ্যমে চলছে মেহেরপুরের সুস্বাদু আমের বেচাকেনা। আমের বেচাকেনার জন্য হাট হিসেবে এখন ব্যবহার হচ্ছে ওয়েবসাইট, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক, টুইটারের বিভিন্ন পেজ ও গ্রুপ।

প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও করোনা সংক্রমণের মাঝেও আমের ভালো দাম নিশ্চিতে বড় ভূমিকা রাখছে অনলাইন এই মার্কেটপ্লেস। এতে শঙ্কার মাঝেই হাসি ফুটেছে বাগান মালিক ও ব্যবসায়ীদের মুখে।

ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপসহ সব ধরনের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে মেহেরপুর জেলার অনেক তরুণ উদ্যোক্তা অনলাইনের মাধ্যমে আম বিক্রি শুরু করেছেন। যার ফলে ভোক্তারা অল্প সময়ের মধ্যে পাচ্ছেন চাহিদা অনুযায়ী ফরমালিনমুক্ত সুস্বাদু ও পরিচ্ছন্ন আম। ফলে তৈরী হচ্ছে তরুণ উদ্যোক্তা ও দূর হচ্ছে বেকারত্ব।

মেহেরপুরের সুস্বাদু আম সরবরাহকারী শীর্ষ তালিকায় থাকা বর্তমান ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান দেশব্যাপী জেলার আম সরবরাহ করছে। তার মধ্যে অন্যতম BD Mangrove, ChaiteParo.Com, BD Hello Bazar, অদম্য শপ, Mango From Meherpur-Team এছাড়াও ব্যাক্তিগত ভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করছে অনেকেই।

আম সরবরাহকারী অনলাইন মার্কেটপ্লেসের সত্ত্বাধিকারীরা দৈনিক দেশান্তরকে জানান, দেশব্যাপী সুস্বাদু ও প্রিজারভেটিভমুক্ত আম ক্রেতাদের মাঝে দিতে পেরে আমরা আনন্দিত, পাশাপাশি মেহেরপুরের সুস্বাদু আম ছড়িয়ে যাচ্ছে দেশময়, কুড়াচ্ছে প্রশংসা যা আমদের গর্বের। প্রতিনিয়ত ৭০ থেকে ১৫০ মণ আম দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পাঠানো হচ্ছে। এটা নিশ্চয় আমাদের জন্য আনন্দের। তরুণ উদ্যোক্তা ও বেকারত্ব দূরীকরণে ডিজিটাল মার্কেটপ্লেস বড় ভূমিকা রাখছে।

জেলায় আমের চাহিদা পূরণ করে, প্রতিনিয়ত দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চলে যাচ্ছে শতশত মণ আম । সরাসরি বাজারে ক্রয়-বিক্রয়ের পাশাপাশি অনলাইনে শীর্ষস্থান দখল করে রেখেছে মেহেরপুরের সুস্বাদু আম।

মামুন অর রশিদ বিজন / দৈনিক দেশান্তর

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগ থেকে পড়ুন