বাংলাদেশ

মেহেরপুরে প্রতিপক্ষকে আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেল সোর্স

  দেশান্তর প্রতিবেদন ১৯ মার্চ ২০২১ , ৫:৪১:০৩

স্টাফ রিপোর্টারঃ মেহেরপুরের গাংনীতে প্রতিপক্ষকে আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেল যুবক সোর্স।

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার মুন্দা গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে রাহেদুল ইসলাম (২৩) ও তার সহযোগী জাকিরুল ইসলামের ছেলে মুস্তাকিন ওরফে জয় (১৮) কে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) রাতে উপজেলার দেবিপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, মুন্দা গ্রামের রাহেদুল ইসলামের সাথে দেবীপুর গ্রামের খোরশেদ আলমের বোনের বিয়ে হয় সাত বছর। বিয়ের পর থেকে স্ত্রীকে নির্যাতন করেতেন স্বামী রাহেদুল। এই কারণে তিন মাস আগে খোরশেদ আলম তার বোনকে বাসায় নিয়ে আসে। এতে রাগান্বিত হয়ে খোরশেদ আলমের ঘরে আগ্নেয়াস্ত্র রেখে পুলিশকে খবর দেয় রহিদুল ইসলাম ও তার সঙ্গী জয়।মেহেরপুরের গাংনীতে স্ত্রীর ভাইকে অস্ত্র দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে সহযোগীসহ আটক ভগ্নিপতি

পুলিশকে জানানো হয় খোরশেদের ঘরে গাঁজা আছে। এ খবর পেয়ে উপজেলার বামন্দি ক্যাম্পের এএসআই আবুল খায়ের, এএসআই ইলিয়াস, এএসআই হেলাল উদ্দিন ও এএসআই শরিফূল ইসলাম এ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করতে গিয়ে দেখা মিলে আগ্নেয়াস্ত্রর।

গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রহমান জানান, দুজন সোর্স কে কৌশলে জিজ্ঞাসাবাদে এক পর্যায়ে আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর কথা স্বীকার করলে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। দুইজন বিরুদ্ধে আগ্নেয়াস্ত্র আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরও খবর 34

Sponsered content