জাতীয়

ভাষা আন্দোলনের ৬৯ বছর আর দেশ স্বাধীনের ৫০ বছর পর ও দেশে অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার

  দেশান্তর প্রতিবেদন ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ , ৪:০১:২১

স্টাফ রিপোর্টারঃ রক্ত দিয়ে বাঙালি জাতি মাতৃভাষা বাংলাকে প্রতিষ্ঠিত করছে রাষ্ট্রভাষা হিসাবে। সেই ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস এখন পৃথিবীর সংগ্রামী জাতির ইতিহাসে এক উজ্জ্বল অধ্যায়। আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি ও পেয়েছে বাঙালির মাতৃভাষা। কিন্তু যাদের জন্য জাতির এই গবিত ইতিহাস, সেই ভাষা শহীদদের স্মরণে এখনো দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গড়ে ওঠেনি শহীদ মিনার। সে কারণে নতুুন প্রজ্জন্ন ভাষাশহীদের রক্তদানের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পারছে না। বিশেষ করে প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোতে শহীদ মিনার না থাকায় তারা প্রথম থেকেই এই ইতিহাস সম্পর্কে জানা থেকে দূরে সরে যাচ্ছে।

এমনকি “আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি” এই গানটি নিজেদের শহীদ মিনারের সামনে দাড়িয়ে গাইতে পারছে না স্কুল, কলেজর শিক্ষাথীরা। শিক্ষার্থীরা চোখের সামনে দেখতে পেলে ভাষাসৈনিকদের আরও বেশি করে জানতে পারবে।
সরকারের প্রতি দেশের সকল শিক্ষাথীর পক্ষে আহবান থাকবে সরকার যেন অতি তাড়াতাডি এই বিষয়ের প্রতি নজর দেয়। দেশের সকল ক্যাম্পাসে যেন হয় স্মৃতির মিনার।

ভাষা আন্দোলনের ৬৯ বছর আর দেশ স্বাধীনের ৫০ বছর পর ও দেশে অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার
যথাযথ মর্যাদার সাথে ডি জে এম সি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস/শহীদ দিবস পালনের সময়
ডি জে এম সি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব রফিকুল ইসলাম জানানঃ ভাষা আন্দোলনের ৬৯ বছর আর দেশ স্বাধীনের ৫০ বছর পর ও আমাদের বিদ্যালয়ে নেই কোনো শহিদ মিনার। যারর ফলে শিক্ষার্থীরা ভাষা শহিদদের স্বরণ করলেও তারা এই দিবসটি যথাযথ মর্যাদার সাথে পালন করতে পারছে না।

সরকারের কাছে তার আকুল আবেদন যেন তার বিদ্যালয় সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহিদ মিনার স্থাপন করা হয়।
এ বিষয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বর্তমান মেম্বার আলফাজ উদ্দিন জানান আমরা চেষ্টা করছি যেন খুব দ্রুত শহীদ মিনার স্থাপন করা হয়

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরও খবর 12

Sponsered content