আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্রের আর্নেস্ট লরেন্স পুরস্কার পাচ্ছেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী

  দেশান্তর প্রতিবেদন ১৫ জানুয়ারি ২০২১ , ১২:১১:৫০

: যুক্তরাষ্ট্রের আর্নেস্ট লরেন্স পুরস্কার পাচ্ছেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী

নিউজ ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল সরকার ঘোষিত ‘দ্য আর্নেস্ট অরল্যান্ডো লরেন্স’ পুরস্কার পাচ্ছেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী এম জাহিদ হাসান। নিউ জার্সির প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটিতে অধ্যয়নরত এবং কোয়ান্টাম ফিজিক্সে টপোলজি বিষয়ে পারদর্শী তিনি।

দেশটির জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের জাতীয় অর্থনীতি এবং জাতির জ্বালানি নিরাপত্তা এগিয়ে নেওয়ার মিশনে গবেষণা ও উন্নয়নে অবদানের জন্য তিনি এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন বলে জানান দেশটির জ্বালানিমন্ত্রী ড্যান ব্রাউইলেট।

মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) দেওয়া এক ঘোষণায় তিনি বলেন, একইসঙ্গে আরও ৭ জনকে এ পুরস্কার দেওয়া হবে। আগামী ১৯ জানুয়ারি ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে এ পুরস্কার বিতরণ করা হবে।

প্রত্যেক লরেন্স পুরস্কার বিজয়ী জ্বালানিমন্ত্রীর স্বাক্ষরযুক্ত একটি প্রশংসাপত্র, আর্নেস্ট অরল্যান্ডো লরেন্সের অনুরূপ স্বর্ণপদক এবং নগদ ২০ হাজার ডলার পাবেন।

১৯৩৯ সালে পদার্থবিদ্যায় নোবেল পুরস্কার বিজয়ী বিজ্ঞানী আর্নেস্ট অরল্যান্ডো লরেন্সকে সম্মান জানানোর জন্য ১৯৫৯ সালে এ অ্যাওয়ার্ড চালু হয়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় লরেন্স পারমাণবিক বোমা তৈরিতে অবদান রেখেছিলেন এবং দেশের জাতীয় রসায়নাগার ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।

পুরস্কারের ঘোষণায় নিজের অনুভূতি জানিয়ে জাহিদ বলেন, লরেন্সের সাইক্লোট্রন উদ্ভাবনের ফলে আধুনিক উচ্চ-শক্তিসম্পন্ন প্রযুক্তি সম্মুখে ধাবিত যা আমি আমার গবেষণায় কোয়ান্টাম পদার্থের টপোলজিকাল অবস্থাগুলো অনুসন্ধান করতে ব্যবহার করি। ‘লরেন্স বার্কলে ন্যাশনাল ল্যাবরেটরি’ এবং ‘এসএলএসি ন্যাশনাল এক্সিলারেটর ল্যাবরেটরির’ কাছে আমার এ কৃতিত্বের জন্য আমি কৃতজ্ঞ।

ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি পাশের পর ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসে গণিত ও পদার্থবিজ্ঞানে উচ্চতর ডিগ্রি নেন ঢাকার সন্তান জাহিদ হাসান। ২০০২ সালে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে ডক্টরেট করেন। আমেরিকান বিজ্ঞানী হিসেবে কয়েক বছর আগে তিনি ‘ওয়েল সেমিমেটাল’ আবিষ্কারের জন্য সম্মাননা পান।

সংবাদটি শেয়ার করুন