fbpx
সংবাদ শিরোনাম
নরসিংদী রায়পুরার মির্জাপুর ইউনিয়নে বিট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ পুলিশ দেশের প্রয়োজনে সর্বোচ্চ নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালনের প্রমাণ দিতে পেরেছে : মন্ত্রিপরিষদ সচিব বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে জবি বাংলা বিভাগ ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক সেমিনার রাবির ভোলা জেলা ছাত্রকল্যাণ সমিতির নেতৃত্বে জুলিয়া-মমিন নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির নেতৃত্বে তুষার-শফিক চীনা ঐতিহ্যের আলিঙ্গন পেলেন রাবি শিক্ষার্থীরা গাংনীতে অবৈধভাবে বাড়ির প্রবেশ পথ বন্ধ ও হুমকির ঘটনায় থানায় অভিযোগ চীনা ঐতিহ্যের আলিঙ্গন পেলেন রাবি শিক্ষার্থীরা শিক্ষাখাতে ট্রাব স্মার্ট অ্যাওয়ার্ড পেলেন মাহফুজুর রহমান বনজ সম্পদের টেকসই ব্যবহার নিশ্চিতে ২য় জাতীয় বন জরিপ করা হচ্ছে -পরিবেশ ও বনমন্ত্রী সাবের চৌধুরী
নোটিশ :

জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘দৈনিক দেশান্তর’ এ সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। এজন্য দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করতে আগ্রহীদের কাছ থেকে আবেদন আহবান করেছে প্রতিষ্ঠানটি। আগ্রহীদের ই-মেইলে সিভি পাঠানোর জন্য বলা হয়েছে। সিভি পাঠানোর ই-মেইল: dainikdeshantar@gmail.com  অথবা ০১৭৮৮-৪০৫০৯১ এ যোগাযোগ করুন।

হেফাজত ইসলামের সাহিত্য ও গবেষণা সম্পাদক মুফতি হারুন ইজহার গ্রেফতার

                                           
এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফ
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টারঃ

চট্রগ্রামে হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের বিলুপ্ত কমিটির সাবেক সাহিত্য ও গবেষণা সম্পাদক মুফতি হারুন ইজহারকে আটক করা হয়েছে।

গতকাল (২৮ এপ্রিল)বুধবার দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে র‍্যাবের একটি দল চট্টগ্রাম শহরের লালখান বাজার মাদরাসা থেকে তাকে আটক করে।

গ্রেফতারের বিষয়টি মুফতী হারুন ইজহারের ব্যক্তিগত সহকারী মোহাম্মদ ওসমান সাংবাদিকদের জানান।

এদিকে, রাত একটার দিকে হেফাজত ইসলামের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর প্রেস সচিব ইনামুল হাসান ফারুকী তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে হারুন ইজহারকে তুলে নিয়ে যাওয়ার খবর জানিয়েছেন।

তবে হারুন ইজহারকে আটকের বিষয়ে চট্রগ্রামের র‌্যাবের পক্ষ থেকে এখনো কোনো বক্তব্য জানা যায়নি।

লালখান বাজার মাদরাসার শিক্ষক সিরাজুল মোস্তফা সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন যে,

এ বিষয়ে হারুন ইজহারের ছেলে

আম্মার বিন হারুন ইজহার বলেন-

আমার বাবা তিন বছর অনেক কষ্ট করেছে আমার বাবা কে আর কষ্ট দিয়েন না ,পুলিশ এর পা ধরে বলতেছিলো।

মোস্তফা আরো বলেন, রাত আনুমানিক সাড়ে এগারোটার কিছু আগে র‍্যাবের একটি দল লালখান বাজার মাদরাসা ঘেরাও করে। পরে মাদরাসার উত্তরপাশে ইফতা বিভাগের নিচে হারুন ইজহারের বাসা ঘেরাও করে তাকে বের করে নিয়ে আসা হয়। এ সময় তিনি সিজদারত অবস্থায় ছিলেন।

ওই শিক্ষক অভিযোগ করেন, র‌্যাবের কাছে গ্রেফতারের কারণ জানতে চাইলে হারুন ইজহারের বড় ছেলেকে র‌্যাব লাথি মেরে ফেলে দেয়। পরে ছোট ছেলে এগিয়ে এলে তাকেও চড়-থাপ্পড় মারে। এসময় হারুন ইজহারের স্ত্রীকেও অপমান করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন মোস্তফা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

অনলাইন জরিপ

আপনি কি মনে করেন পাঠ্যবইইয়ের শরিফ থেকে শরিফা গল্পটি অপসারণ করা প্রয়োজন?
×

এই বিভাগ থেকে পড়ুন