fbpx
সংবাদ শিরোনাম
ফল প্রকাশে অটোমেশন প্রক্রিয়ার উদ্বোধন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ: ১ জনকে হলত্যাগ ও ২ জনের ছাত্রত্ব বাতিলের সুপারিশ শার্শায় ফসলি জমির মাটি বিক্রির সিন্ডিকেট বেপরোয়া, জড়িত খোদ ইউপি সদস্যরা পাইকগাছায় ঘূর্নিঝড় রেমালের প্রভাবে নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধি : মারাত্মক ঝুঁকিতে ২টি ভেড়িবাঁধ স্বতন্ত্র বেতনস্কেল প্রবর্তনের দাবিতে নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন রাবিতে প্রথমবারের মতো ‘ইনোভেশন শোকেসিং’ অনুষ্ঠিত জবির ফিচার, কলাম অ্যান্ড কনটেন্ট রাইটার্সের নেতৃত্বে মুনতাহা-শাহরিয়ার উচ্চশিক্ষা নিয়ে রাবিতে সেমিনার অনুষ্ঠিত শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবনী উদ্যোগের জন্য নির্বাচিত দপ্তর-সংস্থার মাঝে শিল্পমন্ত্রীর সনদ বিতরণ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সর্বজনীন পেনশন নীতিমালা প্রত্যাহারের দাবিতে শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

লাইলাতুল ক্বদরে করণীয় ও বর্জনীয়

                                           
এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফ
প্রকাশ : রবিবার, ৯ মে, ২০২১

লাইলাতুল ক্বদর বা শবে ক্বদরের রাতকে মহান আল্লাহ তায়ালা রমজানের শেষ দশকের বেজোড় রাতে লুকিয়ে রেখেছেন। বান্দাহ বিনিদ্র রজনী কাটাবে, সবর করবে। আর এর মধ্যে খুঁজে পাবে সম্মানিত রাত, আল্লাহর রহমত ও মাগফিরাত। এছাড়াও এ রাতে ফেরেশতার অদৃশ্য মোলাকাতে সিক্ত হবে ইবাদতকারীর হৃদয়, আপন রবের ভালোবাসায় হবে সে উদ্বেলিত। এ যেন দীর্ঘ বিরহের পর আপনজনকে ফিরে পাওয়ার আনন্দ। তাই এ তাৎপর্যপূর্ণ রাতকে আমাদেরকে নামাজসহ বিভিন্ন ইবাদতের মধ্যে কাঁটিয়ে দিতে হবে।

শবে কদরের জন্য কোন দিন নির্ধারিত নেই তাহলে কোন আমল নির্ধারিত হয় কি করে??
এর জন্য কোন নির্ধারিত আমল নেই।
রমজানের শেষ দশকের বেজোড় রাতে বেশি বেশি আমল করা।
চাই নামাজ পড়ে বা কোরআন তেলাওয়াত করে বা জিকির আজকার করে হোক।
মোটকথা এসকল রাতো বেশি ইবাদত করার কথা হাদীসে পাওয়া যায়।

মুসলমানদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন এই রাত সর্ম্পকে হাদিস শরীফে বর্ণনা রয়েছে। এমনকি মুসলমানদের প্রধান ধর্মীয় গ্রন্থ আল কোরআনে সূরা ক্বদর নামে স্বতন্ত্র একটি পূর্ণ সুরা নাজিল হয়েছে। এই সুরায় শবে কদরের রাত্রিকে হাজার মাসের চেয়ে উত্তম বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ রাতে আমরা কিছু আমল করতে পারিঃ-

-আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাওয়া।
-বেশি বেশি কোরআন তেলাওয়াত করা।
-বেশি বেশি নামাজ পড়া।
-জিকির-আজকার করা।
-এছাড়া সালাতুত তওবা, সালাতুল হাজত, সালাতুত তাসবিহ নামাজও পড়া যেতে পারে।
-নিজের জন্য, পিতা-মাতার জন্য, আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব ও সব মোমিন মুসলমানের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করা এবং দেশ ও জাতির কল্যাণ ও সমৃদ্ধি কামনায় দোয়া করা।

কিছু প্রচলিত ভুলঃ-

এরাতে নির্ধারিত কোন আমল নেই,নির্ধারিত কোন দোআ নেই,নির্ধারিত কোন দিন নেই তবে শেষ দশকের বেজোড় রাতের কোন এক রাত,নির্ধারিত কোন সূরা নেই।
মসজিদে বা কোন অনুষ্ঠান করে আয়োজন করার কোন কথা কোরআন হাদীসে উল্লেখ নেই।

উল্লেখ্যঃ-
আমাদের সমাজে মোকছুদুল মোমিনিন ও
নেয়ামুল কোরআন এ জাতিয় কিছু বইয়ের লিখিত কথানুযায়ী আমল করে সাধারন মানুষ শবে ক্বদরের বিষয়টিকে কঠিন করে ফেলেছে।
অথচ এসব বইয়ের অনেক বিষরই সঠিক নয়।

আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে এই মহিমান্বিত রাত্রিতে বেশি বেশি আমল করার তাওফিক দান করুন

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগ থেকে পড়ুন