fbpx
সংবাদ শিরোনাম
ফল প্রকাশে অটোমেশন প্রক্রিয়ার উদ্বোধন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ: ১ জনকে হলত্যাগ ও ২ জনের ছাত্রত্ব বাতিলের সুপারিশ শার্শায় ফসলি জমির মাটি বিক্রির সিন্ডিকেট বেপরোয়া, জড়িত খোদ ইউপি সদস্যরা পাইকগাছায় ঘূর্নিঝড় রেমালের প্রভাবে নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধি : মারাত্মক ঝুঁকিতে ২টি ভেড়িবাঁধ স্বতন্ত্র বেতনস্কেল প্রবর্তনের দাবিতে নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন রাবিতে প্রথমবারের মতো ‘ইনোভেশন শোকেসিং’ অনুষ্ঠিত জবির ফিচার, কলাম অ্যান্ড কনটেন্ট রাইটার্সের নেতৃত্বে মুনতাহা-শাহরিয়ার উচ্চশিক্ষা নিয়ে রাবিতে সেমিনার অনুষ্ঠিত শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবনী উদ্যোগের জন্য নির্বাচিত দপ্তর-সংস্থার মাঝে শিল্পমন্ত্রীর সনদ বিতরণ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সর্বজনীন পেনশন নীতিমালা প্রত্যাহারের দাবিতে শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

মেহেরপুরে বাল্য বিয়ে করায় নবদম্পতিকে পুলিশের দিলেন বাবা 

                                           
জাহিদ মাহমুদ
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১ জুলাই, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মেহেরপুরের গাংনী পৌর সদরের উত্তর পাড়ায় ছেলে বাল্য বিয়ে করায় নবদম্পতিকে পুলিশের হাতে তুলে দিলেন বাবা।

গাংনীতে বাবা-মায়ের অবাধ্য হয়ে প্রেম ঘটিত কারনে বাল্য বিয়ে সম্পন্ন করেছে বখাটে ছেলে। ইতোমধ্যে বাবা-মায়ের বিনা অনুমতিতে ছেলে তার নব বিবাহিত বউ নিয়ে বাড়িতে উঠে। বিষয়টি বাবা-মা মেনে নিতে পারেননি। বাল্য বিয়ে সামাজিক অপরাধ। একথা ভেবে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবর। পরে উপজেলা নিবার্হী অফিসার মৌসুমী খানমের হস্তক্ষেপে বৃহস্পতিবার (১জুলাই) সকালে তাদের আটক করে থানায় নেয়া হয়। নব দম্পতিকে পুলিশের হাতে তুলে দিলেন আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল বাবা।

জানা গেছে, গাংনী পৌর শহরের উত্তর পাড়ায় বসবাস কারী হাসানুজ্জামানের ছেলে আব্দুল্লাহ আল মামুন শুভ’র (১৭) বেশ কিছুদিন ধরে প্রতিবেশী ইকবাল হোসেনের স্কুল পড়ুয়া মেয়ে সাদিয়া আক্তার রিংকি (১৩) এর মধ্যে প্রেমজ সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেম থেকেই অবশেষে বিয়ে। বেশ কয়েকদিন বিয়ের খবর গোপন রেখে গত বুধবার রাতে শুভ নতুন বউ নিয়ে বাড়িতে উঠে। শুভ’র বাবা এ বিয়ে মেনে নিতে পারেননি। তাই প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন।

এবিষয়ে ছেলের চাচা আব্দুল গণি জানান, ছেলেটা বখাটে হয়ে গেছে। বিয়ের এখনও বয়স হয়নি। আমরা চাই বাংলাদেশ আইনে তাদের শাস্তি হউক।

এব্যাপারে গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রহমান জানান, ছেলে মেয়ে দু,জনই অপ্রাপ্ত বয়সী। আমরা বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিতে নিয়ে কাজ করছি।

গাংনী পৌর মেয়র আহম্মেদ আলী উভয় পক্ষকে নিয়ে সমঝোতার উদ্যোগ নিয়েছেন। যেহেতু গত জুন মাসের ৮ তারিখে বিয়ে করেছে, তাই ছেলে মেয়ের দাম্পত্য জীবন অস্বীকার না করে দু-জনকে নিজ নিজ পরিবারে রেখে নির্ধারিত বয়স না হওয়া পর্যন্ত পৃথক থাকতে মুচলেকা নেয়া হতে পারে বলে জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগ থেকে পড়ুন