fbpx
সংবাদ শিরোনাম
ফল প্রকাশে অটোমেশন প্রক্রিয়ার উদ্বোধন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ: ১ জনকে হলত্যাগ ও ২ জনের ছাত্রত্ব বাতিলের সুপারিশ শার্শায় ফসলি জমির মাটি বিক্রির সিন্ডিকেট বেপরোয়া, জড়িত খোদ ইউপি সদস্যরা পাইকগাছায় ঘূর্নিঝড় রেমালের প্রভাবে নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধি : মারাত্মক ঝুঁকিতে ২টি ভেড়িবাঁধ স্বতন্ত্র বেতনস্কেল প্রবর্তনের দাবিতে নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন রাবিতে প্রথমবারের মতো ‘ইনোভেশন শোকেসিং’ অনুষ্ঠিত জবির ফিচার, কলাম অ্যান্ড কনটেন্ট রাইটার্সের নেতৃত্বে মুনতাহা-শাহরিয়ার উচ্চশিক্ষা নিয়ে রাবিতে সেমিনার অনুষ্ঠিত শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবনী উদ্যোগের জন্য নির্বাচিত দপ্তর-সংস্থার মাঝে শিল্পমন্ত্রীর সনদ বিতরণ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সর্বজনীন পেনশন নীতিমালা প্রত্যাহারের দাবিতে শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তির তালিকায় শীর্ষ স্থানে বশেমুরবিপ্রবি

                                           
হৃদয় সরকার
প্রকাশ : সোমবার, ১৫ মার্চ, ২০২১

বিশেষ প্রতিনিধিঃ- দেশের ৪৬টি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তির তালিকায় শীর্ষ স্থানে রয়েছে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(বশেমুরবিপ্রবি)।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইজিসি) সর্বশেষ ৪৬তম বার্ষিক প্রতিবেদনে জানা যায়, দেশে চলমান ৪৬টি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে কয়েক শতাধিক বিদেশি শিক্ষার্থী রয়েছে। তার মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিদেশী শিক্ষার্থীদের সংখ্যা অধিক। প্রতিবেদনে জানা যায়, গেলো ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ২২১জন বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে। যা দেশের অন্যান্য সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর চেয়ে বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তির ক্ষেত্রে একধাপ সামনে এগিয়ে আছে।

বশেমুরবিপ্রবিতে বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তির দায়িত্বে থাকা শিক্ষক ড. দেবব্রত পাল জানান, ২০১৮ সাল থেকে বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তি হওয়া শুরু হয়েছে। ২০১৯ সালেও ১৫০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে সোমালিয়া ও নেপালের শিক্ষার্থীর সংখ্যা অধিক।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সর্বশেষ ৪৬ তম বার্ষিক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ২০১৯ সালে দেশের শিক্ষা কার্যক্রম চলমান ৪৬টি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ২০টিতে ৪৮২ জন বিদেশি শিক্ষার্থী রয়েছে। তার মধ্যে বশেমুরবিপ্রবিতে রয়েছে ২২১জন।

২০১৮ সালে এ সংখ্যা ছিল ৮০৪। অন্যদিকে ১০৫টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ৪০টিতে ভর্তি হয়েছে ১ হাজার ৯৪৯ জন। সে তুলনায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিদেশি শিক্ষার্থীর সংখ্যা তুলনামূলক বেশি।

ইউজিসির পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত এক দশকের মধ্যে ২০১০ সালে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩৫৯ জন, ২০১১ সালে ২১০ জন, ২০১২ সালে ৫২৫ জন, ২০১৩ সালে ৩২৬ জন, ২০১৪ সালে ৪৩২ জন, ২০১৫ সালে ৫৯৩ জন, ২০১৬ সালে ৩৫৫ জন, ২০১৭ সালে ৪৬২, ২০১৮ সালে বেড়ে তা ৮০৪ জন ভর্তি হয়েছে। তবে এর পরের বছর ২০১৯ সালে বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তি প্রায় অর্ধেকে নেমে ৪৮২ জনে দাঁড়িয়েছে।

এবিষয়ে সংশ্লিষ্টরা বলেন, দেশের সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমান সুযোগ-সুবিধা এবং আবাসন ব্যবস্থার অভাবে প্রতিবছর বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তির পরিমান কমে যাচ্ছে। তারা মনে করেন, বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা এবং আবাসন ব্যবস্থার উন্নতি করলে পুনরায় দেশে বিদেশি শিক্ষার্থীরা ভর্তি হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগ থেকে পড়ুন