fbpx
সংবাদ শিরোনাম
রাবিতে আন্তঃহল বিতর্ক প্রতিযোগিতার চ্যাম্পিয়ন সৈয়দ আমির আলী হল লাইলাতুল বারাআত তথা মুক্তি বা পরিত্রাণের রজনী। মুজিবনগরে বিদেশী পিস্তল সহ ৫ যুবক আটক। শারীরিক প্রতিবন্ধী শিশুকে হুইলচেয়ার উপহার কৃষকের মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে ধ্রুমজাল তৈরি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রে ঢাবির ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় উপস্থিতির হার ৯১.৭৫ শতাংশ ২৯ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু রাবির হোসন শহীদ সোহরাওয়ার্দী স্মারক আন্তঃক্লাব বিতর্ক উৎসব-২০২৪ ভাষা শহীদদের প্রতি রাবি রিপোর্টার্স ইউনিটির শ্রদ্ধাঞ্জলি। যশোরের অভয়নগর উপজেলা সমিতির দায়িত্বে গালিব ও পারভেজ সোনারগাঁও বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান মাসুদ রানার পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন
নোটিশ :

জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘দৈনিক দেশান্তর’ এ সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। এজন্য দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করতে আগ্রহীদের কাছ থেকে আবেদন আহবান করেছে প্রতিষ্ঠানটি। আগ্রহীদের ই-মেইলে সিভি পাঠানোর জন্য বলা হয়েছে। সিভি পাঠানোর ই-মেইল: dainikdeshantar@gmail.com  অথবা ০১৭৮৮-৪০৫০৯১ এ যোগাযোগ করুন।

নড়াইল জেলা শহরের সঙ্গে যোগাযোগের সড়কটি পরিণত হয়েছে মরণ ফাঁদে!

                                           
উজ্জ্বল রায়
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৩ জুন, ২০২১

নড়াইল জেলা প্রতিনিধিঃ

নড়াইল জেলা শহরের সঙ্গে যোগাযোগের সড়কটি পরিণত হয়েছে মরণ ফাঁদে। সরু রাস্তা। দুই পাশে মাটি নেই। সে কখন এক পাশের পিচ উঠে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। পাশাপাশি দুটি গাড়ি চলতে গলে পড়তে হয় খাদে। এমন ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হয় নড়াইলের কালিয়া উপজেলার পিরোলি ইউনিয়নবাসীকে। স্থানীরা জানান, ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষের একমাত্র ভরসা সড়কটি। বিকল্প কোনো রাস্তা না থাকায় জেলা শহরের সঙ্গে যোগাযোগের সড়কটি পরিণত হয়েছে মরণ ফাঁদে। ঝুঁকিপূর্ণ বলে সন্ধ্যার পর এ সড়কে চলে না কোনো যান বাহন। ফলে সন্ধ্যার আগেই এলাকার মানুষকে ঘরে ফিরতে হয়। সদর উপজেলার শিঙ্গাশোলপুর ইউনিয়নের তারাপুর গ্রাম থেকে কালিয়া উপজেলার পিরোলী ইউনিয়নের শীতলবাটি গ্রাম পর্যন্ত রাস্তার অবস্থা খুবই খারাপ। এই রাস্তার দূরত্ব মাত্র ৯ কিলোমিটার। রাস্তার পিচ উঠে অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। অনেক স্থানে রাস্তার অর্ধেক অংশের পিচ উঠে গেছে।

শীতলবাটি গ্রামের কৃষক রুস্তম আলী বলেন, বিল থেকে ফসল নিয়ে রাস্তায় উঠতে গেলে ভাঙ্গাচুরা রাস্তার সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে মাটিতে পড়ে যান। অনেক সময় পায়ের নখও উঠে যায়। পিরোলি ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ও কদমতলা গ্রামের বাসিন্দা মো. কাছেদ মোল্যা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমরা গ্রামে বসবাস করি বলেই মনে হয় আমাদর কেউ খোঁজখবর নেয় না। কোনো নেতাও এলাকায় আসেন না। কি কষ্টের মধ্যে আমরা চলাচল করি তা কেউ দেখেও না বোঝেও না। ভোট আসলে আমাদের কদর বাড়ে। কত রকমের ওয়াদা করে।

কালিয়া উপজেলার ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলী মো. গিয়াস উদ্দিন বলেন, কিছুদিন হল ভারপ্রাপ্ত হিসেবে কালিয়ার দায়িত্ব পালন করছি। এখানকার কোনো বিষয় সম্পর্কে আমার ধারণা নেই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

অনলাইন জরিপ

আপনি কি মনে করেন পাঠ্যবইইয়ের শরিফ থেকে শরিফা গল্পটি অপসারণ করা প্রয়োজন?
×

এই বিভাগ থেকে পড়ুন