fbpx
সংবাদ শিরোনাম
মেহেরপুরের সাহিত্যিক মোঃ নুর হোসেন শব্দ কথায় সৃষ্টি করে চলেছেন সাহিত্যের নানান আদিত্য তাকবিরে তাশরিক কখন কিভাবে? সূনয়না বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি জয়নাল,সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত  Making The World A Better Place স্লোগানে তরুণ নেতৃত্ব তৈরি করছে  ইউপিজি ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের উন্নয়নে নতুন করে পদক্ষেপ নেওয়ার সময় এসেছে- শিল্পমন্ত্রী বেনাপোলে দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের কর্মশালা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্ব সকল স্বার্থের উর্ধ্বে – পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী পাইকগাছায় উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা উত্তরা আজমপুরে ডিএনসিসি’র উচ্ছেদ অভিযান; নেতৃত্বে মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম

জুড়ীতে বোরো ফসলি জমি প্রস্তুত করতে ব্যস্ত কৃষক

                                           
জালালুর রহমান, মৌলভীবাজার
প্রকাশ : রবিবার, ১৪ জানুয়ারি, ২০২৪

মৌলভীবাজারের জুড়ীতে প্রচন্ড শীতকে উপেক্ষা করে উপজেলার মাঠে মাঠে চলছে বোরো ফসলি জমি প্রস্তুতির কাজ। জমি প্রস্তুত ও চারা রোপনের উপযুক্ত সময় হওয়ার ফলে ইতিমধ্যে জমিতে বাচাই, বাঁধ নির্মাণ, পানি সেঁচ ও রোপনে লিপ্ত হয়ে পড়েছেন কৃষকগণ।

উপজেলা কৃষি অফিস সৃত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে ৬ হাজার ৪৩ হেক্টর জমিতে চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। উল্লেখ্য গত বছরের অর্জন ৫ হাজার ৯২৫ হেক্টর। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে।

উপজেলার একাধিক অঞ্চলের বোরো ফসলি মাঠ ঘুরে দেখা গেছে, মাঠে মাঠে চলছে বীজতলা ও ফসলি জমি প্রস্তুতির কাজ। জমিতে জমিতে শীতের সকাল থেকে পড়ন্ত বিকেল পর্যন্ত হাল-চাষ, জমির বাঁধ নির্মাণ, জমিতে পানি সেঁচ ও বেড়া দেওয়ার কাজে ব্যস্ত সময় কাটছে কৃষকদের।

আগাম প্রস্তুত করে কে কার আগে পালা কর্মে চারা রোপণ করবেন এমন প্রতিযোগিতা কৃষকদের মধ্যে (চলমান) শুরু হয়েছে। কেউবা জমিতে সার ও গোবর দিচ্ছেন কেউ শ্রমিকদের তদারকি করছেন, কেউ কেউ বীজতলা তৈরী করে বীজ ছড়িয়ে ফেলছেন আবার কেউ কেউ আগাছা বাছাই করে জমির কোনে একেক স্তুপ করে রাখছেন এমন দৃশ্য হাওরাঞ্চলের সর্বত্রে।

হাকালুকি হাওরের কৃষক নয়া গ্রামের বাসিন্দা শাসন মিয়া বলেন, অন্য ফসলের চেয়ে বোরো আবাদে খরছ বেশি হয়। কিন্তু এবারে বাম্পার ফসল পাওয়ার আশাবাদী।

জুড়ী উপজেলা কৃষি অফিসার মাহমুদুল আলম খাঁন এ প্রতিবেদক কে বলেন, কৃষকদেরকে উদ্বুদ্ধ করার জন্য ২৫ বিনা ধান ২৫, বঙ্গবন্ধু ধান ১০০ এবং ব্রিধান ১০২ সহ অন্যান্য জাতের বীজ বিতরণ করা হয়েছে। হাওরাঞ্চলে জমি প্রস্তুত বাঁচাই ও রোপণ শুরু হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এবারে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি ফলন পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগ থেকে পড়ুন