fbpx
সংবাদ শিরোনাম
মেহেরপুরের সাহিত্যিক মোঃ নুর হোসেন শব্দ কথায় সৃষ্টি করে চলেছেন সাহিত্যের নানান আদিত্য তাকবিরে তাশরিক কখন কিভাবে? সূনয়না বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি জয়নাল,সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত  Making The World A Better Place স্লোগানে তরুণ নেতৃত্ব তৈরি করছে  ইউপিজি ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের উন্নয়নে নতুন করে পদক্ষেপ নেওয়ার সময় এসেছে- শিল্পমন্ত্রী বেনাপোলে দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের কর্মশালা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্ব সকল স্বার্থের উর্ধ্বে – পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী পাইকগাছায় উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা উত্তরা আজমপুরে ডিএনসিসি’র উচ্ছেদ অভিযান; নেতৃত্বে মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম

চাষি | হুমায়ূণ কবীর

                                           
শাবলু শাহাবউদ্দিন
প্রকাশ : বুধবার, ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

চাষি
হুমায়ূণ কবীর

চাষি!
মোর ধান খেল মৌমাছি।

গত বছর কিছু জমিয়ে ছিলাম
বাঁধিয়া ছিলাম আশার ঘর
কাদা মাঠে গিয়ে নেমে গিয়ে ছিলাম
নিজেরে করিয়া পর।

স্বপ্ন ছিটিয়ে;যন্ত করিলাম
প্রখর রোদে ঝরে ঘাম
নিজেরে নিজেই কহিলাম তব
এইবার পাব দাম।

তিলে-তিলে সোনা ফলে
রক্ত করিয়া পানি
বাড়ির উঠানো বাধিয়ে রেখেছি
ধান রাখার গোলাখানি।

অবশেষে মোর ক্ষেতটা হাসে
হৃদয়ে খুশির জোয়ার
বউরে কহিলাম,
এ বছর তবে “অনাহারে”
থাকিতে হবেনা আর।

ধান কেটে এনে মাড়াই করিলাম
এলো যে সুখের দিন
বাবু মশাই! এসে,কহিল বসে
ভুলে গেছ কি ঋণ?

মুড়ি খেতে দিয়ে কহিলাম তব
না-না বাবু,সব মনে তো আছে
আপনার দু’শ মুদ্রা দিব
সোনা বেচার পাছে।

ধমক দিয়ে কহিল রতন
কিসের দু’শ মুদ্রা
সেদিনের ঋন হয়ে গেছে আজ
হাজারের ঘর ছাড়া।

শুনিয়া আকাশ ভেঙ্গে পড়িল
বেপারির কাছে গেলাম
কষ্টের ফসল বিকিয়ে দিয়ে
অল্পই কিছু পেলাম।

ঋণের টাকা দেওয়ার পরে
কাছে থাকিল কিছু
আবার সেই অনাহারের
ভাগ্য ছাড়িলনা পিছু।

বউ এসে,কহিল হেসে
ধান দাও চাল বাচি
কহিলাম ওগো,
আমি তো “চাষি”
তাই ধান নিয়ে গেছে
ডানাহীন মৌমাছি!!

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগ থেকে পড়ুন