fbpx
সংবাদ শিরোনাম
মেহেরপুরের সাহিত্যিক মোঃ নুর হোসেন শব্দ কথায় সৃষ্টি করে চলেছেন সাহিত্যের নানান আদিত্য তাকবিরে তাশরিক কখন কিভাবে? সূনয়না বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি জয়নাল,সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত  Making The World A Better Place স্লোগানে তরুণ নেতৃত্ব তৈরি করছে  ইউপিজি ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের উন্নয়নে নতুন করে পদক্ষেপ নেওয়ার সময় এসেছে- শিল্পমন্ত্রী বেনাপোলে দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের কর্মশালা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্ব সকল স্বার্থের উর্ধ্বে – পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী পাইকগাছায় উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা উত্তরা আজমপুরে ডিএনসিসি’র উচ্ছেদ অভিযান; নেতৃত্বে মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম

কুষ্টিয়াতে প্রকাশ্যে স্বামীর গুলিতে স্ত্রী-সন্তানসহ নিহত-৩

                                           
তানভীর আহমেদ
প্রকাশ : রবিবার, ১৩ জুন, ২০২১

নিজেস্ব প্রতিবেদকঃ কুষ্টিয়া শহরের কাস্টম মোড়ে স্বামীর গুলিতে স্ত্রী-সন্তানসহ তিনজনকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার আসামী পুলিশের এক সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সৌমেনকে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার ১৩জুন সকাল সাড়ে ১১টার দিকে শহরের কাস্টমস মোড় এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।আটক সৌমেন রায় খুলনার ফুলতলা থানায় সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) হিসেবে কর্মরত আছেন।

নিহতরা হলেন- কুমারখালী উপজেলার বাঁশগ্রাম নিতাইল পাড়া এলাকার আমির শেখ ও হাসিনার মেয়ে আসমা খাতুন (২৫) এবং আসমার ২য় পক্ষের শিশু সন্তান রবিন (৭), এবং আসমার প্রেমিক চাপড়া ইউনিয়নের সাওতা কারিগর পাড়া গ্রামে মেজবার খানের ছেলে শাকিল খান (২৮)।

শাকিল বিকাশের ডিস্ট্রিবিউশন সেলস অফিসার পদে (ডিএসও) চাকরি করতেন। রবিন আসমার ২য় পক্ষের ছেলে। এএসআই সৌমেন রায়ের ২য় স্ত্রী আসমা এবং আসমার ৩য় স্বামী হল সৌমেন রায়।

শাকিলের সহকর্মী জাফর বলেন, শাকিলের বাড়ি ও আমার বাড়ি কুমারখালীর সাওতা গ্রামে। সকালে অফিস থেকে বের হয়ে আমরা মার্কেটে যাই। তারপর জানতে পারি শাকিল খুন হয়েছে।

পুলিশ, হাসপাতাল ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকাল সাড়ে ১১টার দিকে শহরের কাস্টমস মোড় এলাকায় প্রকাশ্যে শাকিল, আসমা এবং রবিনকে গুলি করে সৌমেন। কুষ্টিয়াতে প্রকাশ্যে স্বামীর গুলিতে স্ত্রী-সন্তানসহ নিহত-৩

এ সময় স্থানীয় জনগণ ও ব্যবসায়ীরা তাকে আটক করে। পরে ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়রা তাদের হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাকিল ও রবিন মারা যান। এবং ঘটনাস্থলে মারা যান আসমা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে যান এবং অভিযুক্ত সৌমেনকে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক করেন। নিহতদের মরদেহ কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শাকিলের সঙ্গে আসমার অনৈতিক সম্পর্ক জেনে যাওয়ায় সৌমেন এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটায়।কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার তাপস কুমার সরকার বলেন, আসমাকে হাসপাতালে আনার আগেই মৃত্যু হয়েছে। বাকি দুজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অভিযুক্তকে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক করা হয়েছে। আসমার পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, আসমার ৩টি বিয়ে হয়েছে। তার প্রথম স্বামীর ঘরে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। আসমার দ্বিতীয় স্বামী রুবেলের ঘরের সন্তান নিহত শিশুর রবিন। রুবেলের সাথে ছাড়াছাড়ির পরে ৪ বছর আগে এএসআই সৌমেন সরকারের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠার পর বিয়ে হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগ থেকে পড়ুন