fbpx
সংবাদ শিরোনাম
রাবিতে আন্তঃহল বিতর্ক প্রতিযোগিতার চ্যাম্পিয়ন সৈয়দ আমির আলী হল লাইলাতুল বারাআত তথা মুক্তি বা পরিত্রাণের রজনী। মুজিবনগরে বিদেশী পিস্তল সহ ৫ যুবক আটক। শারীরিক প্রতিবন্ধী শিশুকে হুইলচেয়ার উপহার কৃষকের মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে ধ্রুমজাল তৈরি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রে ঢাবির ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় উপস্থিতির হার ৯১.৭৫ শতাংশ ২৯ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু রাবির হোসন শহীদ সোহরাওয়ার্দী স্মারক আন্তঃক্লাব বিতর্ক উৎসব-২০২৪ ভাষা শহীদদের প্রতি রাবি রিপোর্টার্স ইউনিটির শ্রদ্ধাঞ্জলি। যশোরের অভয়নগর উপজেলা সমিতির দায়িত্বে গালিব ও পারভেজ সোনারগাঁও বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান মাসুদ রানার পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন
নোটিশ :

জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘দৈনিক দেশান্তর’ এ সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। এজন্য দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করতে আগ্রহীদের কাছ থেকে আবেদন আহবান করেছে প্রতিষ্ঠানটি। আগ্রহীদের ই-মেইলে সিভি পাঠানোর জন্য বলা হয়েছে। সিভি পাঠানোর ই-মেইল: dainikdeshantar@gmail.com  অথবা ০১৭৮৮-৪০৫০৯১ এ যোগাযোগ করুন।

কথা রাখলো ইবি প্রশাসন

                                           
ইমরান মাহমুদ
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

ইবি প্রতিনিধিঃ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) প্রধাণ ফটকে প্রায় দুই যুগ ধরে সৌন্দর্য ছড়িয়ে আসছিলো একটি কৃষ্ণচূড়া গাছ। কতৃপক্ষের অবহেলা সহ বিভিন্ন কারনে করোনাকালীন সময়ে গাছটি মারা যায়। ডালপালা ভেঙ্গে দুর্ঘটনা হওয়ার আশংকায় গত ১৫ জানুয়ারি কেটে ফেলে হয় গাছটি। হাজারো শিক্ষার্থীর স্মৃতি আর আবেগের সাথে জড়িয়ে থাকা গাছটি কর্তনের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন আবেগঘন স্ট্যাটাস দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা। একইসাথে সেই স্থানে নতুন একটি কৃষ্ণচূড়া গাছ লাগানোর দাবি জানান।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন খুব শীঘ্রই একটি কৃষ্ণচূড়া গাছ লাগানোর আশ্বাস দেয়। তার প্রেক্ষিতে আজ মঙ্গলবার বেলা ১২ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে একটি কৃষ্ণচূড়া গাছ রোপন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আবদুস সালাম, প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া, প্রক্টর প্রফেসর ড. মো.জাহাঙ্গীর হোসেন ও ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মু. আতাউর রহমান প্রমুখ।

বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী নিরব বিশ্বাস বলেন,’আমাদের স্মৃতির সাথে জড়িয়ে থাকা প্রধান ফটকের কৃষ্ণচূড়া গাছটি বেশ কিছুদিন আগে মারা গেছে। সেই স্থানে আজকে নতুন একটি চারা রোপণ করা হলো। আশা করছি চারাটি বড় হয়ে আগের মতো বাহারি ফুলে প্রধান ফটককে রঙ্গিন করে তুলবে’।

ভিসি প্রফেসর ড.শেখ আব্দুস সালাম বলেন, ’গাছটি দেখতে দেখতে শিক্ষার্থীরা অভ্যাস্ত হয়ে পড়েছিল। হঠ্যাৎ গাছটি মরে যাওয়ায় শিক্ষর্থীদের মনে আঘাত লাগে। আজ আমরা সেখানে নতুন করে একটি চারা রোপন করলাম। চারাটি বড় হয়ে ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য যেমন বৃদ্ধি করবে সেই সাথে শিক্ষার্থীদের মনকেও প্রফুল্ল রাখবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

অনলাইন জরিপ

আপনি কি মনে করেন পাঠ্যবইইয়ের শরিফ থেকে শরিফা গল্পটি অপসারণ করা প্রয়োজন?
×

এই বিভাগ থেকে পড়ুন