fbpx

আর্তমানবার সেবায় বাগেরহাট রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের কার্যক্রম সর্ব মহলে প্রশংসিত

                                           
সোহেল রানা বাবু
প্রকাশ : বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১

বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের মতো করোনাকালীন দুর্যোগ মোকাবেলা ও সহায়তায় বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট বাগেরহাট ইউনিট একঝাঁক যুব রেড ক্রিসেন্ট সদস্য নিয়ে গেলো বছর করোনার প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকে তাদের সেবাধর্মী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

এই করোনাকালীন সময়ে সংগঠিত প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঘুর্ণিঝড় আম্ফান ও ইয়াসে বাগেরহাটের উপকূলীয় অঞ্চল সহ সর্বত্র পাশে দাঁড়িয়েছে বাগেরহাট রেডক্রিসেন্ট ও যুব রেড ক্রিসেন্টের সক্রিয় সদস্যগণ। কোভিড টিকাদান প্রকল্পে জেলার স্বাস্থ্য বিভাগের সঙ্গে সমন্ময় করে টিকাদান প্রকল্পে নিরলস ভাবে সার্বিক সহযোগীতা করে যাচ্ছে এই সংস্হাটির সদস্যরা। সম্প্রতি বাগেরহাটে করোনার ভয়াল থাবা বিরাজ করায় বাগেরহাট রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি রোগীদের শ্বাসকষ্টে অক্সিজেন সরবরাহের জন্য দিনরাত ২৪ ঘন্টা ফোন করলেই রোগীর বাড়ীতে অক্সিজেন নিয়ে হাজির হচ্ছে।

এই ইউনিটের সদস্যরা করোনার বিস্তার রোধে মাইকিং,সচেতনতামূলক গণসঙ্গীত পরিবেশন,মাক্স,হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরন,বিভিন্ন সচেতনতামূলক পোষ্টার বিতরন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি লকডাউন চলাকালে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি রোগী এবং রাস্তার পার্শ্বে অবস্হানরত পাগল,বেওয়ারিশ লোক,বাস টার্মিনালে থাকা বাসের রাত্রিকালীন পাহারাদার শ্রমিকদের তালিকা তৈরি করে মাসব্যাপী ৩০০ জনকে রাত্রের সুষম খাবার পৌঁছে দিচ্ছে এই ইউনিট।

সর্বশেষ আজ বুধবার (০৭জুলাই) রোগী বহনের জন্য একটি অত্যাধুনিক মানের অ্যাম্বুলেন্স এসে যুক্ত হয়েছে এই ইউনিটের কার্যক্রমকে গতিশীল করতে। এ ব্যাপারে বাগেরহাট রেডক্রিসেন্ট ইউনিটের সাধারন সম্পাদক তালুকদার নাজমুল কবির ঝিলাম জানান যেহেতু বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট একটি সেবামূলক প্রতিষ্ঠান তাই এর সাধারন সম্পাদক হিসেবে আমি এবং আমার সহযাত্রী ইউনিটের অন্যান্য পরিচালক এবং যুব রেড ক্রিসেন্টের সদস্যদের বাগেরহাট তথা দেশবাসীর কাছে একটা দায়বদ্ধতা রয়েছে এবং আমরা সেই দায়বদ্ধতা মাথায় রেখে কাজ করছি এবং সকলকে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে এই দুর্যোগ থেকে মুক্তি পেতে সর্বধরনের সহায়তা কামনা করছি।

বাগেরহাট রেডক্রিসেন্টের কার্যক্রমের সার্বিক তদারকি এবং ভূয়সী প্রশংসা করে সংস্হার জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য বি এম এ বাগেরহাট শাখার সাধারন সম্পাদক ডাঃ মোশাররফ হোসেন মুক্ত বলেন রেডক্রিসেন্ট মূলত একটি মহান সেবার ব্রত নিয়ে গঠিত সংস্হা,তাই এর প্রতিটি সদস্যকে হতে হয় সেবামূখী মনোভবের যা বাগেরহাট রেডক্রিসেন্ট ইউনিটের প্রতিটি সদস্যের মধ্যে রয়েছে। তিনি নিজেও বাগেরহাটের সন্তান হিসেবে এই ইউনিটের সকল কার্যক্রমে পারতঃপক্ষে থেকে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দিয়ে থাকেন। সব মিলিয়ে বাগেরহাট রেড ক্রিসেন্ট বাগেরহাটের আপামর জনতার মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলতে সক্ষম হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এই বিভাগ থেকে পড়ুন